ডায়েট ছাড়া নিজের ওজন কমান ছোট্ট কিছু পদক্ষেপ নিয়ে।

হেলো পাঠক কেমন আছেন ? আশা করি ভালো আছেন। আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কিভাবে আপনি ডায়েট ছাড়া নিজের ওজন কমাতে পারেন? এটি খুবই গুরুত্তপুর্ন আপনার যদি ওজন কমে এতে আপনাকে খুবই সুন্দর লাগবে। এবং এর থেকেও গুরুত্তপুর্ন যে আপনার স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। কারন অতিরিক্ত ওজনের জন্য আমাদের শরীলে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাছাড়া অতিরিক্ত ওজনের কারনে আমাদের ডায়বেটিস, ক্যান্সার এবং হার্ট এর সমস্যাও হতে হতে পারে। তাই ছোট ছোট পদক্ষেপ আমাদের বড় কোন সমাধান আনতে পারে। তাই আমারা এখন থেকে এমন কিছু ছোট ছোট পদক্ষেপ নিবো যেগুলো ভবিষ্যতে আপনার জীবনে বড় কিছু এনে দিবে এতে আপনার কোন ডায়েট কন্ট্রোল করতে হবে না। নিচে কিছু ছোট ছোট পদক্ষেপ দেওয়া হলোঃ

১. ছোট প্লেট

আপনি এখন থেকে ছোট প্লেটে খাবেন। ছোট প্লেটে খেলে আপনার সাইকোলোজিক ভাবে মনে হবে যে আপনি পর্যাপ্ত পরিমানই খাচ্ছেন। তাই আপনি আজথেকে ছোট প্লেটে খাওয়া শুরু করুন। আর গবেষনায় দেখা গেছে যে যারা ছোট প্লেটে খায় তারা সবসময়ের তুলনায় ২০% কম খায়। কারন তার মনে হয় যে সে পর্যাপ্ত পরিমানই খাচ্ছে।

২. পানি

আমরা অনেকে বাহিরে যাওয়ার সময় পানি পিপাসা পেলে ভিবিন্ন সফট ড্রিংকস পান করি। আপনি কি জানেন যে সফট ড্রিংকস এ প্রচুর পরিমানে সুগার থাকে ফ্যাট থাকে। এতে করে কিন্তু আপনার ওজন টা আরো বেশি বাড়ে। এতে আমি আপনাকে একটাই কথা বলবো যে বাহিরে পানি পিপাসা পেলে শুধু পিওর পানি পান করবেন সফট ড্রিংকস গুলো যথাসম্ভব পরিহার করুন। এবং আপনি ভাত খাওয়ার আগে এক গ্লাস বা দুই গ্লাস পানি খেতে পারেন। যা আপনার পেত টি পুর্ন হয়ে যাবে এবং এতে আপনি বেশি খেতে পারবেন না। তাই এখন থেকে আপনি খাওয়ার আগে পানি খেয়ে নিতে পারেন।

৩. ভালো ঘুম

আপনি যদি ওজন কমাতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে ভালো ঘুমোতে হবে। আপনার যদি ঘুম টা ঠিক না থাকে তাহলে আপনার খাবারের নিয়ম টা পরিবর্তন হয়ে যাবে। এবং আপনার বেশি বেশি খুদা পাবে। এবং আপনার ওজনটাও বাড়বে। তাছাড়া আপনার যদি ভালো ঘুম না হয় তাহলে আপনার শরিলে ভিবিন্ন ধরনের হরমন রিলিজ হয় যার কারনে আপনার ব্যায়াম করতে মন চাইবে না, আবার দেখা যায় আপনি রাতে গুমাতে পারেন নি যার কারনে দিনে শুয়ে আছেন এতে আপনার ফিজিক্যা এক্টিবিটি টাও কমে যায় ফলে আপনার ওজন কিন্তু বারবে। তাই আপনার ওজন কমানোর জন্য ভালো ঘুম টা খুবই খুবই গুরুত্তপুর্ন। আপনি সবসময় সঠিক সময় গুমাবেন দেখা গেছে যারা দেরি করে গুমায় তাদের ওজনটাও বেড়ে যায়।

৪. গ্রুপ এক্টিভিটি

গ্রুপ এক্টিভিটি টি খুবই গুরুত্তপুর্ন যদি আপনি ওজন কমাতে চান। কারন দেখা গেছে যারা গ্রুপে একসাথে ব্যায়াম করে তারা সবসময় এক্টিভব থাকে এবং সবসময় ভালো করে ব্যায়াম করে থাকে। কারন এক জনকে দেখে আরেক জন অনুপ্রেরিত হয়। এবং এই সব মানুষই ২০% বেশি সফল হয়ে থাকে অন্যদের তুলনায়।

৫. চামচ দিয়ে খাবেন

এক গবেষনায় দেখা গেছে যে যদি আমরা নন-ডমিনেট হাত দিয়ে খাই তাহলে তুলনামুলক ভাবে কম খাওয়া যায়। এখন আমি সমসয় ডান হাত দিয়ে খাই, এখন যদি বাম হাত দিয়ে খাই তাহলে আমার খাওয়াটা কমে যাবে।  এবং আরেকটি কারন হচ্ছে আমার খাবার টি আস্তে আস্তে হয়ে যাবে। যখন সময় বেশি লাগবে তখন আমাদের ব্রেন একটি সিগন্যাল দিবে যে আমাদের পেত পুর্ন হয়েগেছে। তাই এতে করে কি হচ্ছে আপনি কিন্তু কমখেয়েও এমন মনে হচ্ছে যে আমার পেত ভরে গেছে।

৬. আস্তে আস্তে খাবেন

ওজন কমানোর জন্য আপনি আস্তে আস্তে খাবেন এবং চিবিয়ে চিবিয়ে খাবেন যাতে খাবার টি হজম হয়। এই আস্তে আস্তে খাওয়ার ইফেক্ট টি কিন্তু আপনি অবশ্যই পাবেন। আমাদের ছোট ছোট পদক্ষেপ এ ওজন কমানোর মধ্যে যাযা পদক্ষেপ দেওয়া আছে আমার মতে এটা একটু বেশি সহজ। আপনি যদি আস্তে আস্তে খান তাহলে দেখবেন যে আপনার খাবারের পরিমান অনেক কমে গেছে।

৭. ব্যায়াম করবেন

ব্যায়াম করলে আপনার ক্যালোরি বার্ন হবে আর ক্যালোরি বার্ন হলে আপনার ওজন কমবে খুবই সহজ সমাধান । তাই আপনি যত বেশি ব্যায়াম করবেন আপনার ওজন তত কমবে। এখন অনেকে বলবে যে ব্যায়াম করার সময় কই এখন আমি বলবো যে আপনাকে বাচতে হলে আপনাকে ব্যায়াম করতেই হবে। তাই এখন থেকেই এটাকে প্রায়রিটি দিয়ে ব্যায়াম করা শুরু করে দিন। এখন অনেকেই বলবেন যে আমি কোন ব্যায়াম টি করবো আর কতটুকু করবো। এটা যানার জন্য আপনার শরিলের গঠন যানতে হবে। সব থেকে ভালো হয় আপনি একজন ফিজিও থ্যারাপিস্ট এর সাথে কথা বলুন। তাছাড়া আপনি সকালে হাটা হাটি করতে পারেন জগিং করতে পারেন।

ওজন খুবই গুরুত্তপুর্ন জিনিস আমাদের দেহের জন্য। কিন্তু অতিরিক্ত কোন কিছুই ভালো না তেমনই ওজন। আশা করি উপরের নিয়ম গুলো ফোলো করবেন এবং নিজের ওজন কমাতে সফল হবেন। ভালো লাগলে পোস্টটি আপনার বন্ধু দের সাথে শেয়ার করবেন। ভালো থাকবেন ধন্যবাদ।

Image Courtesy of Pexels

Leave a Comment